নবনিযুক্ত প্রাক প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন ভাতার বরাদ্ধ ও অনলাইন ইএফটি ফরম পূরণ 2023

পিইডিপি-৪ এর আওতায় প্রাক প্রাথমিক শিক্ষা বাস্তবায়নের নিমিত্ত ২০২২-২৩ অর্থবছরে নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত প্রাক প্রাথমিক সহকারী শিক্ষকগণের জানুঃ-জুন/২০২৩ সময়ের বেতন ভাতাদি বাবদ বরাদ্দ। শিক্ষকদের বেতন ভাতার বরাদ্দের একটি চিঠি অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে চিফ একাউন্টস এন্ড ফিনান্স অফিসার, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, সিজিএ ভবন, ৫ম তলা, সেগুনবাগিচা ঢাকা  বরাবর পাঠানো হয়েছে। 

চিঠিতে ২০০০ নবনিযুক্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন ভাতার বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে।  সারাদেশে একযোগে নবনিযুক্ত শিক্ষকগণ গত দুই মাস থেকে বেতন ভাতা না পেলেও এই বরাদ্দ পাওয়ার পর আগামী মাসে বেতন ভাতা পাবেন। সেই সঙ্গে নবনিযুক্ত প্রাথমিক শিক্ষকদের ঈদ উল ফিতরের বোনাস এবং বৈশাখী ভাতা বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে।

উক্ত চিঠিতে বলা হয়েছে, 

চতুর্থ প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচি (পিইডিপি৪) আওতায় সাব কম্পনেন্ট “প্রাক প্রাথমিক শিক্ষা” বাস্তবায়নের নিমিত্ত ২০২২ ২৩ অর্থবছরে পিইডিপি৪ এর আওতায় নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত প্রাক-প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক/শিক্ষিকা গণের যোগদানের তারিখ হতে (জানুয়ারি- জুন /২০২৩ মাসের) বেতন ভাতাদির বাবদ ব্যয় নির্বাহী কল্পে বরাদ্দ প্রদান। 

নির্দেশক্রমে চতুর্থ প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচি (পিইডিইপি ৪) এর সাব কম্পনেন্ট প্রাক প্রাথমিক শিক্ষা বাস্তবায়নের নিমিত ২০২২-২৩ অর্থবছরে  পিইডিপি৪  এর আওতায় নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক/শিক্ষিকারণের যোগদানের তারিখ হতে( জানুয়ারি -জুন ২০২৩ মাসের) বেতন ভাতাদি বাবদ ব্যয় নির্বাহের জন্য নিম্নোক্ত ছকের খাত ও অর্থনৈতিক কোডে  সর্বমোট ২৫৯,৫৭,১১,২৫০,০০( ২৫৯ কোটি ৫৭ লক্ষ ১১ হাজার ২৫০ টাকা( সংযুক্ত তালিকা থানা/ উপজেলা শিক্ষা অফিসারগণের অনুকূলে বরাদ্দ এবং ব্যয় করার  মঞ্জুরি জ্ঞাপন করা হলো। 

এ ব্যয় ২০২২ -২৩ অর্থ বছরের উন্নয়ন বাজেটের সংশোধিত মঞ্জুরী নং ২১, চতুর্থ প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচি (পিইডিপি 4) এর সংস্থা কোড নং ১২৪ এবং হিসাবের খাত ২২৪ ২৩৭ ৯০০ এর আওতায় ছকে উল্লেখিত অর্থনৈতিক কোডের অনুকূলে /বরাদ্দকৃত টাকা থেকে নির্বাহ করা হবে। 

অর্থব্যয়ের শর্তাবলী:

ক) বরাদ্দকৃত অর্থ ১০০% জিওবি খাত হতে ব্যয় নির্বাহ করতে হবে। 

খ) কোন অবস্থায় বরাদ্দকৃত অর্থের অতিরিক্ত অর্থ উত্তোলন/ ব্যয় করা যাবে না। 

গ) এই ব্যয় কোনক্রমে সংযুক্ত ছকে বর্ণিত খাত এবং অর্থনৈতিক কোড ব্যতীত অন্য কোন উপখাত এবং কোডে ব্যয় করা যাবে না। 

ঘ) সরকারি আর্থিক বিধি-বিধান অনুসরণপূর্বক ব্যয় অর্থ ব্যয় করতে হবে। 

ঙ) এ ব্যয়ের যাবতীয় অডিট তার দপ্তরে সম্পাদিত হবে বিধায় খরচের সকল ভাউচার তার অফিসে সংরক্ষণ করতে হবে যেন চাহিদা মাত্র পাওয়া যায়।

নবনিযুক্ত প্রাক প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন ভাতার বরাদ্ধ ও অনলাইন ইএফটি ফরম পূরণ 2023

চ) বরাদ্দকৃত অর্থ ব্যয়ের বিবরণী অবশ্যই ডিপিই এর web based computerised accounting সিস্টেম এ সাত দিনের মধ্যে এন্ট্রি দিতে হবে অন্যথায় পরবর্তী বরাদ্দ দেয়া সম্ভব হবে না। 

ছ) কোন প্রকার অনিয়মিত ব্যয়ের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট আয়ন -ব্যায়ন কর্মকর্তা ব্যক্তিগতভাবে দায়ী থাকবেন। 

  • এতে মহাপরিচালকের সদয় অনুমোদন রয়েছে। 
  • চিফ একাউন্টস এন্ড ফিনান্স অফিসার কে পৃষ্ঠাঙ্কনপূর্বক সংশ্লিষ্ট হিসাব রক্ষণ অফিসে প্রয়োজন অনুযায়ী প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ করা হলো। 

বেতন প্রাপ্তির জন্য শিক্ষকদের করণীয়ঃ

  • নবনিযুক্ত প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন প্রাপ্তির জন্য সর্বপ্রথম নির্ধারিত ব্যাংকে ব্যাংক একাউন্ট বা ব্যাংক হিসাব খুলতে হবে।
  •  ব্যাংক হিসাব খোলার পর নিজে এনাইডি দিয়ে নিবন্ধনকৃত মোবাইল নাম্বার দিয়ে অনলাইনে পে ফিক্সেশন করতে হবে।
  • অনলাইনে পে ফিক্সেশন আবেদন করা হয়ে গেলে ইএফটি ফরম পূরণ করতে হবে। এটি অফলাইনেই পূরণ করে উপজেলা শিক্ষা অফিসে জমা দিতে হয়। 
  • সবশেষে, উপজেলা শিক্ষা অফিসে পে ফিক্সেশনের কপি ও ইএফটি ফরম সহ সার্ভিস বুক জমা দিতে হবে।

উল্লেখ্য ইতিমধ্যেই প্রায় সকল উপজেলায় অনলাইন পে ফিক্সেশন এবং ইএফটির কাজ সম্পন্ন হয়ে গেছে। যে সকল উপজেলায় এখনো অনলাইন কার্যক্রম গুলো সম্পন্ন হয়নি তারা দ্রুতই উপজেলা শিক্ষা অফিসে যোগাযোগ করে ইএফটির কাজটি সম্পন্ন করে নিবেন। 

বরাদ্দপ্রাপ্তির পর আমরা বিভিন্ন উপজেলা শিক্ষা অফিস এ জানতে চেয়েছিলাম নবনিযুক্ত প্রাথমিক শিক্ষক কবে বেতন পাবেন?

আমরা জানতে পেরেছি যে আগামী এপ্রিল মাসের প্রথম ও দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যে নব নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকগণ তাদের বকেয়া বেতন সহ যাবতীয় বেতন ভাতা ও বোনাস সমূহ পাবেন। তবে কিছু কিছু উপজেলায় এখনো অনলাইনের কিছু কার্যক্রম বাকি থাকায় কিছুটা দেরি হতে পারে।  তবে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে নির্দেশনা রয়েছে পবিত্র ঈদুল ফিতরের আগে যেন নবনিযুক্ত প্রাথমিক শিক্ষকদের সকল প্রকার বেতন-বোনাস পরিশোধ করা হয়। 

আরো পড়ুন রমজানে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন সময়সূচী 2023

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ইএফটি (EFT) নিবন্ধন ফরম

বেতন প্রাপ্তির জন্য অনলাইনে ইএফটি ফরম পূরণ করা আবশ্যক। সাধারণত উপজেলা শিক্ষা অফিসে নিচে দেয়া ফরম পূরণ করে জমা দিলে অফিস কর্তৃক অনলাইন ইএফটি করে দেয়া হয়।

নিচে দেয়া লিংকে ক্লিক করে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ইএফটি ফর্ম ডাউনলোড করে নিন- 

ইএফটি ফরম পিডীএফ

ইএফটি ফরম পূরণের নিয়ম ও সতর্কতা 

নতুন ইএফটি ফরমে  চারটি পাতার সবকটিই পূরন করতে হবে। ইএফটি ফরমে তিনটি সার্ভার থেকে কিছু তথ্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে (অটো) চলে আসবে। এগুলো হলো-

ক. এনআইডি সার্ভার থেকে

খ. পে-ফিক্সেশন থেকে

গ. বাংলাদেশ ব্যাংক সার্ভার থেকে

বিশেষ করে ব্যক্তিগত তথ্য, জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর, বেতনের অংশ এবং ব্যাংক হিসাব নম্বরের বিপরীতে কিছু তথ্য উক্ত তিনটি সার্ভার থেকে আসবে। তাই এই তিনটি অংশ কোনক্রমেই ভুল করা যাবে না।

ব্যাংক হিসাব তথ্য

ব্যাংক হিসাব তথ্য অংশে ব্যাংক হিসেবের নাম যেভাবে আছে সেভাবেই লিখতে হবে। কোনক্রমেই এনআইডি কিংবা শিক্ষা সনদ অনুযায়ী লেখা যাবে না। কারণ এই অংশটির তথ্য বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্ভারে রক্ষিত। তাই ব্যাংক হিসেবে ব্যবহৃত নাম না দিয়ে এনআইডি কিংবা শিক্ষা সনদ অনুযায়ী নাম দিলে ইএফটি ফেরত আসবে। ধরা যাক কোন ব্যক্তির এনআইডি কিংবা শিক্ষা সনদে নাম আছে রাহুল ইসলাম রাতুল। কিন্তু ব্যাংক হিসেবে আছে রাহুল ইসলাম। এক্ষেত্রে এনআইডি কিংবা শিক্ষা সনদে থাকা রাহুল ইসলাম রাতুল নামটি ব্যাংক হিসেবে ব্যবহার করলে বেতন আসবে না। কারণ বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্ভারে ব্যাংক হিসেবে নাম আছে রাহুল ইসলাম। ব্যাংক হিসাবের ধরনে সঞ্চয়ী (Savings) এ টিক চিহ্ন দিতে হবে।

রাউটিং নম্বর

সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের নাম + routing numer লিখে গুগলে সার্চ দিলেই সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের রাউটিং নম্বর পাওয়া যাবে। যেমন- sonali bank routing number লিখে সার্চ দিলে সমগ্র বাংলাদেশের সোনালী ব্যাংকের বিভিন্ন শাখার রাউটিং নম্বর পাওয়া যাবে।। সেখান থেকে নির্দিষ্ট ব্যাংক শাখার রাউটিং নম্বরটি নিতে হবে। অথবা চেক বইয়ের পাতায় কিংবা সংশ্লিষ্ট ব্যাংক থেকেও রাউটিং নম্বর জেনে নেওয়া যাবে। মনে রাখতে হবে ব্যাংকের রাউটিং নম্বর ভুল করা যাবে না।

ইএফটি ফরমের ওয়ার্ড ও পিডিএফ ফাইল পাবেন এখানে

পে ফিক্সেশনের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র 

প্রাক প্রাথমিক শিক্ষকদের অনলাইনে বেতন নির্ধারণী পূর্ব প্রস্তুতি-

১. জাতীয় পরিচয়পত্র

২. মোবাইল ফোন নম্বর

৩. বেতন নির্ধারণ সংক্রান্ত অফিস আদেশ এবং আনুসংগিক সকল কাগজপত্র যথা, নিয়োগ, বদলী, টাইমস্কেল, সিলেকশন গ্রেড, উচ্চতর গ্রেড, বেতন পুনঃনির্ধারণ প্রভৃতি সংক্রান্ত অফিস আদেশের সফট কপি (পিডিএফ/জেপিইজি ফরমেটে)

৪. নতুন নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত সনদ, যোগদানপত্র, স্বাস্থ্যগত সনদ ইত্যাদির সফট কপি (পিডিএফ/জেপিইজি ফরমেটে)

৫. চলমান এবং নতুন নিয়োগ ব্যতীত অন্যান্য বেতন নির্ধারণের জন্য ০১/০৭/২০১৫ তারিখের বেতন নির্ধারণ ‘ভেরিফিকেশন নম্বর’

৬. প্রিন্ট করার ব্যবস্থা

পে ফিক্সেশন ফরম পূরণ

১ম ধাপ: www.payfixation.gov.bd এবং www.ibas.finance.gov.bd/ibas2/Fixation অনলাইন পে ফিক্সেশন সাইটগুলির যেকোনো একটিতে প্রবেশ করুন। আপনি অনলাইন বেতন নির্ধারণের শিরোনাম সহ কিছু নির্দেশাবলী সহ একটি পৃষ্ঠা দেখতে পাবেন। পরবর্তী ধাপ বোতামে ক্লিক করুন।

২য় ধাপ: পরবর্তী ধাপে ক্লিক করার পর, নতুন পৃষ্ঠায় আপনি কিছু গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা পাবেন। এসব তথ্য সবসময় পরিবর্তিত হয়। এগুলো পড়া এবং বোঝার পরে “আমি প্রিন্ট করেছি, পড়েছি এবং বুঝেছি” লেখার টিক চিহ্নে ক্লিক করতে হবে। এরপর আপনাকে পরবর্তী ধাপে ক্লিক করতে হবে।

৩য় ধাপ: এবার আপনি অনলাইনে বেতন নির্ধারণের ৯ টি ধাপ সহ একটি নতুন পৃষ্ঠা দেখতে পাবেন। এই পৃষ্ঠায় দেয়া নির্দেশাবলী পড়ে আপনার পছন্দ নির্বাচন করতে হবে। পড়ার পরে আপনাকে ‘হ্যাঁ’ বোতামে ক্লিক করতে হবে এবং তারপরে আপনাকে একটি নতুন পৃষ্ঠায় নিয়ে যাওয়া হবে।

৪র্থ ধাপঃ আপনার সামনে আরেকটি নতুন পেজ আসবে যেখান থেকে আপনাকে আপনার উপযুক্ত অপশনটি নির্বাচন করতে হবে।

৫ম ধাপ: একটি নতুন পৃষ্ঠা পাবেন যেখানে আপনার আইডি কার্ড নম্বর, বয়স, মোবাইল নম্বর প্রদান করতে হবে এবং সঠিকভাবে ক্যাপচা কোডটি পূরণ করতে হবে। তারপর লগ ইন বাটনে ক্লিক করতে হবে।

সবকিছু সঠিকভাবে প্রদান করা হলে আপনি আপনার মোবাইল নম্বরে একটি কোড পাবেন।

৬ষ্ঠ ধাপ:  আপনি আপনার মোবাইলে যে কোড পেয়েছেন তা দিয়ে যাচাইকরণ বোতামে ক্লিক করুন। 

এখানে আপনার তথ্য দিতে হবে। এছাড়াও আপনাকে এখানে বিভিন্ন কাগজপ্ত্র আপলোড করতে হবে। যেমন –

  • যোগদানের আদেশের অনুলিপি
  • অ্যাপয়েন্টমেন্টের কপি
  • মেডিকেল সার্টিফিকেট
  • একাডেমিক সার্টিফিকেট
  • মুক্তিযোদ্ধা সনদ
  • অন্যান্য

সমস্ত তথ্য প্রদান এবং সমস্ত কাগজ আপলোড করার পরে, আপনাকে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে। জমা দেওয়া সম্পূর্ণ হলে, আপনাকে একটি অনুলিপি প্রিন্ট করতে বলা হবে। আপনি এটি প্রিন্ট করতে পারেন বা PDF ফরম্যাটে সংরক্ষণ করতে পারেন। এইভাবে আপনি আপনার অনলাইন বেতন নির্ধারণ সম্পূর্ণ করতে পারেন।

About admin

Check Also

IPEMIS এ অনুমোদিত শিক্ষক পদ সংখ্যা সংশোধন

প্রাথমিকের IPEMIS এ অনুমোদিত শিক্ষক পদ সংশোধন করার পদ্ধতি

IPEMIS এ অনুমোদিত শিক্ষক পদ সংশোধন করবেন কিভাবে?  এটি নিয়ে অনেকেই দ্বিধায় পড়ে যান।  আপনার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *