নার্সিং ভর্তি আবেদন ও ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি ভর্তি 2023

নার্সিং ভর্তি আবেদন ও মিডওয়াইফারি কোর্সে ভর্তিচ্ছু ছাত্র-ছাত্রীদের ফরম পুরণ সংক্রান্ত নির্দেশনাঃ সরকারি এবং বেসরকারি নার্সিং ও মিডওয়াইফারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ০৪ বছর মেয়াদি বিএসসি ইন নার্সিং, ০৩ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারি এবং ০৩ বহর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্সে ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিচ্ছু প্রার্থীদের জন্য ভর্তি সংক্রান্ত নির্দেশনাঃ

বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কাউন্সিল আইন-২০১৬ এর অধীন প্রণীত “বিএসসি ইন নার্সিং, ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়ে্স এন্ড মিডওয়াইফারি এবং ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্সে ছাত্রছাত্রী ভর্তি নীতিমালা-২০২৩” অনুযায়ী নিম্নলিখিত শর্তে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

Table of Contents

নার্সিং ভর্তি আবেদন এর শর্তাবলি:

  • আবেদনকারীকে বাংলাদেশের স্থায়ী নাগরিক হতে হবে।
  • ২০২১ ৰা ২০২২ সালের এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং ২০১৯ বা ২০২০ সালের এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।

৪ বছর মেয়াদি ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন নার্সিং কোর্স: 

বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় সর্বমোট ন্যুনতম জিপিএ (GPA) ৭.০০ থাকতে হবে। তবে কোনো পরীক্ষায় জিপিএ ৩.০০ এর কম গ্রহণযোগ্য হবে না এবং উভয় পরীক্ষায় জীববিজ্ঞানে ন্যুনতম জিপিএ ৩.০০ থাকতে হবে।

৩ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারি কোর্স: 

যে কোনো বিভাগে এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় সর্বমোট ন্যুনতম জিপিএ (GPA) ৬.০০ থাকতে হবে। তবে কোনো পরীক্ষায় জিপিএ (074) ২.৫০ এর কম গ্রহণযোগ্য হবে না।

৩ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্স: 

যে কোনো বিভাগে এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় সর্বমোট ন্যুনতম জিপিএ (GPA) ৬.০০ থাকতে হবে। তবে কোনো পরীক্ষায় জিপিএ (GPA) ২.৫০ এর কম গ্রহণযোগ্য হবে না।

  • যারা O Level/A Level পরীক্ষায় উত্তীর্ণ তাদের মার্কশিটসমূহ বাংলাদেশে প্রচলিত জিপিএ তে রুপান্তর করে Equivalence Certificate সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ড হতে সংগ্রহ করার পর অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন নার্সিং ও ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারি কোর্সে ভর্তির ক্ষেত্রে সরকারি প্রতিষ্ঠানে নির্দিষ্ট আসনের ১০% পুরুষ প্রার্থীর জন্য সংরক্ষিত থাকবে। 
  • বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট আসনের সর্বোচ্চ ২০% পুরুষ প্রার্থী ভর্তি করা যাবে। ডিপ্রোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্সে শুধু মহিলা প্রার্থী আবেদনের যোগ্য হবে।

নার্সিং ভর্তি ফরম পুরণের নিয়মাবলি

অনলাইন ফরম পুরণের নিয়মাবলিঃ

  1. Website: http://bnmc.teletalk.com.bd
  2. ওয়েবসাইটে লগ ইন করার আগে নিয্নবর্ণিত তথ্য ও অন্যান্য উপকরণ সাথে রাখতে হবে, উপকরণগুলো না থাকলে ফরম পূরণ শেষ না করেই website থেকে বের হয়ে আসতে হবে।
  3. অনলাইনে আবেদন ফরম পুরণ করার পর টেলিটক প্রি-পেইড মোবাইল থেকে বিএসসি ইন নার্সিং কোর্সের জন্য ৭০০/-(সাতশত) টাকা এবং ডিপ্রোমা ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারি/ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্সের জন্য ৫০০/- (পাঁচশত) টাকা ভর্তি পরীক্ষার ফি বাবদ জমা দিতে হবে। ফি জমা দেওয়ার পরেই আবেদনপত্র চূড়ান্তভাবে গৃহীত হবে।

ক. প্রার্থীর 300*300 Pixel মাপের সদ্য তোলা রঙ্গিন ছবি (JPG) ফাইলের সাইজ 100 Kb এর বেশি হবে না স্ক্যান করা অথবা (ডিজিটাল ক্যামেরায় তোলা)।

খ) প্রার্থীর 300*80 Pixel মাপের স্ক্যান করা স্বাক্ষর (JPG) (কাগজে গাঢ় করে স্বাক্ষর করে তারপর স্ক্যান করতে হবে)। ফাইলের সাইজ 60 KB এর বেশি হবে না। ছবি ও স্বাক্ষর প্রয়োজনীয় মাপে তৈরি করা ও মিলিয়ে দেখার জন্য ১ এ বর্ণিত Home Page এ একটি Link দেওয়া আছে।

(গ) ৩ এর (ক) ও (খ) তে বর্ণিত ছবি ও স্থাক্ষর কম্পিউটারে (যে কম্পিউটার থেকে Website এ লগ ইন করবেন) অথবা Pendrive এ পূর্ব থেকে সংরক্ষিত রাখতে হবে।

(ঘ) ইংরেজিতে নিজের জেলা, বর্তমান ঠিকানা, স্থায়ী ঠিকানা (জেলা, থানা উপজেলা, পোস্ট কোড ইত্যাদিসহ) লিখিতভাবে নিজের কাছে রাখতে হবে। 

(ঙ) ভতি্ছু নার্সিং কলেজ/নার্সিং ও মিডওয়াইফারি ইনন্টিটিউট সমূহের নামের পছন্দক্রম একবার দেয়ার পর আর পরিবর্তন করা যাবে না। নার্সিং কলেজ কোড-১০১ থেকে ১১৫ (সারণি-২), নার্সিং ইনস্টিটিউট কোড-২০১ থেকে ২৪৭ সারণি-৩) এবং মিডওয়াইফারি ইনস্টিটিউট কোড ৩০১ থেকে ৩৬২ (সারণি-৪)।

(চ) ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্র  নির্বাচনে সারণি-১ এর প্রয়োজন হবে।

(ছ) ওয়েব ব্রাউজার হতে http://bnmc.teletalk.com.bd এ প্রবেশ করতে হবে। প্রথমে ভর্তির নিয়মাবলির একটি সংযোগ/লিংক দেখা যাবে। সেটা ক্লিক করে ভালভাবে পড়ে নিতে হবে। পড়া শেষ হলে আগের পৃষ্ঠায় ফেরত আসতে হবে।

জ) এখানে প্রার্থীদের এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষার তথ্য ইনপুট দেওয়ার অপশন আছে। প্রযোজ্য ক্ষেত্রে পরীক্ষার্থীর ডাটা ভেরিফিকেশন সাপেক্ষে এপ্লিকেশন ফরম দেখা যাবে।

ঝ) প্রার্থীর কোটায় আবেদন করার সুযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট কোটার বাটনে ক্লিক করতে হবে। কোটার অপশন পরিবর্তনের কোনো সুযোগ থাকবে না। কোটায় ভর্তির সুযোগ পেলে ভর্তির সময় প্রয়োজনীয় প্রমাণাদি দেখাতে না পারলে ভর্তি বাতিল হয়ে যাবে।

ঞ) প্রার্থীর নাম, পিতা-মাতার নাম, জন্ম তারিখ এবং পৃষ্ঠার মাবামাবি পরীক্ষায় প্রাপ্ত লেটার প্রেডসমূহ এবং গ্রেড পয়েন্টজ স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলে আসবে (উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, কারিগরি শিক্ষাবোর্ড, “ও লেভেল/এ” লেভেল এর প্রার্থীরা তাদের অপশনে গিয়ে তথ্যসমূহ নিজেরা পুরণ করবেন)। পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের ভর্তিকৃত প্রতিষ্ঠান হতে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ড/ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সঠিকতা যাচাই (ভেরিফিকেশন) করা হবে। যাচাইয়ে সঠিক পাওয়া না গেলে ভর্তি বাতিল করা হবে।

ট) নিজ জেলা (Home District) এর ঘর যথাযথভাবে সিলেক্ট করতে হবে পূরণকৃত জেলা কোটায় ভর্তির সুযোগ পেলে ভর্তির সময় সে জেলার স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে জন্ম নিবন্ধন সনদ দেখাতে না পারলে বরাদ্দকৃত আসন বাতিল হয়ে যাবে। অন্যান্য কোটার ক্ষেত্রেও এই শর্ত প্রযোজ্য হবে।

ঠ) মুক্তিযোদ্ধা কোটার (সন্তান, সন্তানদের সন্তান) দাবীদার হলে এখানে Eligible For Freedom Fighter Quota বাটনে ক্লিক  করতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা কোটায় আবেদনকারী প্রার্থীদের মুক্তিযোদ্ধা সনদের স্মারক নম্বর/সনদ নম্বর ও তারিখ অনলাইন আবেদনে এন্ট্রি করতে হবে, সনদ্/স্মারক নম্বর ও তারিখ ছাড়া মুক্তিযোদ্ধা কোটায় অনলাইন এন্টি হবে না। ভুল করে এ অপশন দিলে এবং কোটায় আসন পেলেও ভর্তি বাতিল হয়ে যাবে (মুক্তিযোদ্ধা কোটার দাবীদার সন্তানদের সন্তান এর ক্ষেত্রে সরকার কর্তৃক জারিকৃত বিধি-বিধান অনুসরণ করা হবে)।

ড) বর্তমান ঠিকানা ও স্থায়ী ঠিকানা এক হলে Permanent Address এর বাটনে ক্লিক করলেই চলবে।

ঢ) ১১ (এগার) ডিজিটের একটি মোবাইল নম্বর সার্বক্ষণিক অবশ্যই চালু রাখতে হবে। টাকা জমা দেয়ার পর উক্ত মোবাইল নম্বরে এসএমএস এর মাধ্যমে User ID ও Password প্রদান করা হবে। দ্বিতীয় ঘরে আরেকটি মোবাইল নম্বর দিতে হবে (প্রয়োজনে যোগাযোগের জন্য)।

নার্সিং ভর্তি চয়েস লিস্ট

ভর্তিচ্ছু প্রতিষ্ঠান নির্বাচনের জন্য চয়েস অপশন পূরণ করতে হবে। বিএসসি ইন নার্সিং কোর্স, ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়ে্স এন্ড মিডওয়াইফারি ও ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্স অনুযায়ী ফরমে বাম পাশের লিস্টে কলেজ/ইনস্টিটিউটের নাম রয়েছে। বাম পাশের এই লিস্ট থেকে পছন্দের কলেজ/ইনস্টিটিউট হাইলাইট করে ADD বাটন ক্লিক করলে সেটা ডান দিকের লিস্টে চলে যাবে। এভাবে এক এক করে নিজের পছন্দের কলেজগুলোকে ক্রমানুসারে ডান দিকের লিস্টে নিতে হবে। ডান পাশের এই লিস্ট-ই হবে প্রার্থীর পছন্দক্রম। 

বিএসসি ইন নার্সিং কোর্সের জন্য প্রতিষ্ঠানের তালিকা সারণি-২, ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারি কোর্সের জন্য প্রতিষ্ঠানের তালিকা সারণি-৩ এবং ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফার কোর্সের জন্য প্রতিষ্ঠানের তালিকা সারণি-৪ এ উল্লেখ করা হয়েছে৷ 

উত্তীর্ন প্রার্থীর মেধা ও পছন্দের ভিস্তিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠার নির্ধারিত হবে। (অধিক সংখ্যক প্রতিষ্ঠান পছন্দের ক্রমে রাখা সমীচীন এতে ভর্তির সুযোগ বেশি পাবে)।

পূর্ব থেকে তৈরি করে রাখা ছবি ও স্বাক্ষর কম্পিউটার অথবা পেনড্রাইভ থেকে ব্রাউজ করে সিলেক্ট করতে হবে। পৃষ্ঠা শেষে [Declaration) বাটনে ক্লিক করে Submit বাটনে ক্লিক করতে হবে।

  • ছবি ও স্বাক্ষর নির্ধারিত না হলে আপলোড হবে না। ছবি ও স্বাক্ষর নির্দেশনা মোতাবেক করার অপশন অনলাইনে থাকবে।
  • এ পৃষ্ঠায় একটি User ID Number দেখা যাবে। এ নম্বর যত্র সহকারে সংরক্ষণ করতে হবে, কারণ এটা দিয়ে Teletalk Prepaid মোবাইল থেকে আবেদনের ফি জমা দিতে হবে। 
  • আবেদনকারীর ছবি ও স্বাক্ষরসহ সকল তথ্য দেখা যাবে আবেদনের কপি অবশ্যই প্রিন্ট করে রাখতে হবে।

ভর্তি ফরম পূরণে সতর্কতা 

  • আবেদনের কপিতে যদি কোন ভুল তথ্য দেখা যায় অথবা ছবি বা স্বাক্ষর ভুল হয় তবে সঠিক ছঝি/স্বাক্ষর/তথ্য যোগ করে নতুনভাবে ফরম পূরণ করতে হবে | 
  • একবার পরীক্ষার ফি জমা দিলে এরপর ছবি বা স্বাক্ষর পরিবর্তনের সুযোগ নেই। অনলাইনে আবেদনপত্র জমা দেয়ার পূর্বে নির্দেশাবলি ভালভাবে পড়ে অত্যন্ত সতর্কতার সাথে ফরম পূরণ করতে হবে। ত্রুটিপূর্ণ আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে।
  • সহায়তার জন্য ০১৫৫০-৬৯৯৩০০, ০১৫৫০-৬৯৯৩০১ এবং admission.bnme@gmail.com ই-মেইলে যোগাযোগ করা যাবে।
  • প্রি-পেইড টেলিটক মোবাইলের মাধ্যমে ফি জমা দিলে User ID ও Password পাওয়া যাবে। এটা উভয় মোবাইলেই আসবে। ফরম পূরণের সময় লেখা তারকা স্টোর) চিহ্নিত নম্বরটি যে কোন অপারেটরের মোবাইল নম্বর ব্যবহার করা যাবে।  User ID ও Password  দিয়ে নির্ধারিত তারিখে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করা যাবে।

নার্সিং ভর্তি আবেদন ফি

ফি এর টাকা টেলিটক প্রি-পেইড মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জমা দিতে হবে | ফরম পূরণকালে আবেদনকারীর প্রদত্ত মোবাইল নম্বরে প্রয়োজনীয় SMS দেওয়া হবে।

ফি জমা দেয়ার পদ্ধতি

১ম এসএমএসঃ BNMC <Space> USER ID টাইপ করে Send করুন 16222 নম্বরে।

২য় এসএমএসঃ  BNMC <Space> YES <Space> PIN টাইপ করে Send করুন 16222 নম্বরে।

PIN Number টি সঠিকভাবে লেখা হলে উক্ত টেলিটক প্রি-পেইড মোবাইল ফোন থেকে পরীক্ষার ফি বাবদ বিএসসি ইন নার্সিং কোর্সের জন্য ৭০০/- (সাতশত) টাকা এবং ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারি/ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্সের জন্য ৫০০/- (পাঁচশত) টাকা কেটে রাখা হবে এবং প্রার্থীকে ফিরতি User ID ও Password দেওয়া হবে। 

প্রবেশপত্র ডাউনলোড

প্রবেশপত্র নির্ধারিত তারিখের মধ্যে http://bnmc.teletalk.com.bd লিংক থেকে প্রবেশপত্র সংগ্রহ করা যাবে। বিষয়টি SMS মাধ্যমেও জানানো হবে প্রবেশপত্র হারিয়ে গেলেও পুনরায় একই প্রক্রিয়ায় প্রবেশপত্র সংগ্রহ করা যাবে।

কেন্দ্রের নাম ও কোড

সারণি-১ এ পরীক্ষা কেন্দ্রের নাম ও কোড দেওয়া হলো। সারণি-১ এ বর্ণিত ২০ (বিশ) টি Centre Code এর মধ্যে একজন পরীক্ষার্থী যে কোন একটি Centre পছন্দ করতে পারবেন। সেন্টারের নাম ও কোড নম্বর নিম্নরূপঃ

সারণি-১

নার্সিং ভর্তি আবেদন ও ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি ভর্তি 2023 নার্সিং ভর্তি আবেদন ও ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি ভর্তি 2023 নার্সিং ভর্তি আবেদন ও ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি ভর্তি 2023 নার্সিং ভর্তি আবেদন ও ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি ভর্তি 2023

ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত অন্যান্য তথ্য স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগ www.mefwd.gov.bd, বিএনএমসি”র ওয়েবসাইট www.bnmc.gov.bd এবং নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট www.dgnm.gov.bd হতে জানা যাবে।

প্রার্থী মূল্যায়ন ও নম্বর বিভাজনঃ

(ক) এসএসসি ও এইচএসসি (সমমান) এর জিপিএ এবং প্রার্থীর লিখিত পরীক্ষায় প্রাপ্ত ন্বরের ভিত্তিতে প্রার্থী মূল্যায়ন করা হবে।

  • এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-এর ৪ গুণিতক – ২০ নম্বর (সর্বোচ্চ)
  • এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-এর ৬ গুণিতক – ৩০ নম্বর (সর্বোচ্চ)
  • MCQ পদ্ধতিতে লিখিত পরীক্ষা  ১০০ নম্বর (সর্বোচ্চ)

সবমোট ১৫০ নম্বর

খ) লিখিত পরীক্ষার পাশ নম্বর ৪০ (চল্লিশ)।

বিএসসি ইন নার্সিং কোর্সের বিষয় ভিত্তিক নম্বর বিভাজনঃ 

বাংলা-২০, ইংরেজি-২০, গণিত-১০, বিজ্ঞান-৩০ (জীববিজ্ঞান, পদার্থবিদ্যা ও রসায়ন) এবং সাধারণ জ্ঞান-২০ অর্থাৎ সর্বমোট ১০০ নম্বরের MCQ পদ্ধতিতে লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে।

ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারি কোর্সের জন্য বিষয় ভিত্তিক নম্বর বিভাজনঃ 

বাংলা-২০, ইংরেজি-২০ গণিত-১০, সাধারণ বিজ্ঞান-২৫ এবং সাধারণ জ্ঞান-২৫ অর্থাৎ সর্বমোট-১০০ নম্বরের MCQ পদ্ধতিতে লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে।

ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্সের জন্য বিষয় ভিত্তিক নম্বর বিভাজনঃ 

বাংলা-২০, ইংরেজি- ২০, গণিত-১০, সাধারণ বিজ্ঞান-২৫ এবং সাধারণ জ্ঞান-২৫ অর্থাৎ সর্বমোট-১০০ নম্বরের MCQ পদ্ধতিতে লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে।

ভর্তি যোগ্য প্রার্থী নির্বাচ্ন

পাশকৃত প্রার্থীদের মধ্যে মেধা তালিকা ও পছন্দক্রমের ভিত্তিতে সরকারি প্রতিষ্ঠানে এবং অবশিষ্ট উত্তীর্ণ প্রার্থীরা মেধাক্রমের ভিত্তিতে নির্ধারিত আসনে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ভর্তির সুযোগ পাবেন। অকৃতকার্য কোন প্রার্থী সরকারি ও বেসরকারি কোন নার্সিং ও মিডওয়াইফারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির সুযোগ পাবেন না।

জাতীয় মেধা তালিকা ও প্রার্থী নির্বাচনঃ

ক) ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন নার্সিং ও ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারি কোর্সে ভর্তির ক্ষেত্রে সরকারি প্রতিষ্ঠানে নির্দিষ্ট আসনের ১০% পুরুষ প্রার্থীর জন্য সংরক্ষিত থাকবে। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট আসনের সর্বোচ্চ ২০% পুরুষ প্রার্থী ভর্তি করা যাবে এবং ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্সে কেবল নারী প্রার্থীগণকে অন্যান্য শর্তাবলি, মেধাক্রম ও কোটার ভিত্তিতে প্রার্থী নির্বাচন করা হবে।

খ) প্রাপ্ত মোট নম্বরের ভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষায় কৃতকার্য প্রার্থীদের জাতীয় মেধা তালিকা (বিশেষ কোটা যদি থাকে উল্লেখসহ) স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগ, নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর এবং বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

গ) সরকারি নার্সিং কলেজ/ইনস্টিটিউট এ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান এবং সন্তানের সন্তানদের জন্য মোট আসনের ২% সংরক্ষিত থাকবে। অবশিষ্ট ৯৮% আসনের মধ্যে ৬০% প্রার্থী জাতীয় মেধা এবং ৪০% প্রার্থী জেলা কোটায় নির্বাচন করা হবে।

ঘ) নির্বাচিত প্রার্থীদের অর্জিত মেধাক্রম এবং নার্সিং কলেজ/ইনস্টিটিউট পছন্দের ভিত্তিতে প্রার্থী কোন সরকারি প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হবেন, তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে নির্বাচন করা হবে।

ঙ) ডিপ্লোমা কোর্সের ক্ষেত্রে তাদের কোর্স পছন্দক্রমের ভিত্তিতে স্বয়ংক্রিয়ভাবে কোর্স নির্ধারিত হবে।

চ) মুক্তিযোদ্ধা কোটার দাবীদার সন্তানদের সন্তান এর ক্ষেত্রে সরকার কর্তৃক জারিকৃত বিধি-বিধান অনুসরণ করা হবে।

ছ) পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী/নির্বাচিত কোন প্রার্থীর দেয়া তথ্য যো ফলাফল নির্ধারণে বিবেচিত হয়) অসম্পূর্ণ ৰা ভুল প্রমাণিত হলে তার পরীক্ষা/ফলাফল/ ভর্তি বাতিল বলে গণ্য হবে।

জ) কোন প্রারথী/ আবেদনকারী মুক্তিযোদ্ধা বা অন্য কোন কোটা ভুল করে পূরণ করলে টাকা জমা দেয়ার পূর্বে নতুনভাবে ফরম পূরণ করতে পারবেন।

ঝ) পরীক্ষার ফলাফল প্রার্থীর মোবাইলে SMS এবং স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগ , নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর  এবং বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কাউন্সিল ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে জানানো হবে।

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র 

নির্বাচিত প্রার্থীকে ভর্তির সময় নিম্নলিখিত কাগজপত্র জমা দিতে হবেঃ

ক) শিক্ষাবোর্ড হতে প্রাপ্ত এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষার মূল/সাময়িক সনদপত্র;

খ) শিক্ষাবোর্ড হতে প্রাপ্ত এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষার মূল একাডেমিক ট্রান্সক্রিপ্ট/গ্রেডশিট/ মার্কশিট;

গ) সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের ০৩ (তিন) কপি সত্যায়িত প্রেথম শ্রেণির কর্মকর্তার নামসহ সীলমোহর) রঙ্গিন ছবি;

ঘ) মুক্তিযোদ্ধা কোটায় সংরক্ষিত আসনের জন্য মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট এর বীর মুক্তিযোদ্ধা তথ্য ব্যবস্থাপনা সিস্টেমে উল্লিখিত মুক্তিযোদ্ধা তালিকা সমূহের যেকোনো একটির সাথে প্রদত্ত তথ্যের মিল থাকতে হবে৷ মুক্তিযোদ্ধার ছেলে/মেয়ে/নাতি/নাতনি হিসেবে ইউনিয়ন/পোরসভা/সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক প্রত্যয়ন পত্র সম্পর্কের সনদ) থাকতে হবে।

ঘ) বর্ণিত কোর্সে আবেদনের ডাউনলোডকৃত রঙ্গিন ছবি সংবলিত ভর্তি পরীক্ষার প্রবেশপত্র;

ঙ) জেলা কোটা দাবির ক্ষেত্রে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/পৌরসভার মেয়র/সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর এর নিকট হতে গৃহীত নাগরিকত্ব সনদ ও জন্ম নিবন্ধন পত্র দাখিল করতে হবে। 

নার্সিং ও ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি ভর্তির আবেদনের সময়সীমা

  • অনলাইনে আবেদন শুরুর তারিখ :১৫ মার্চ ২০২৩ বুধবার সকাল ১০.০০ ঘটিকা)
  • অনলাইনে আবেদনের শেষ তারিখ :১৩ এপ্রিল ২০২৩ (বৃহস্পতিবার রাত ১১.৫৯ ঘটিকা)
  • অনলাইনে আবেদনের ফি জমাদানের শেষ তারিখ : ১৫ এপ্রিল ২০২৩ (শনিবার রাত ১১.৫৯ ঘটিকা)

নার্সিং ভর্তি পরীক্ষার প্রবেশপত্র ডাউনলোড ও পরীক্ষার তারিখ

অনলাইনে প্রবেশ পত্র ডাউনলোড শুরুর তারিখ  : ০৯ মে ২০২৩ (মঙ্গলবার সকাল ১০.০০ ঘটিকা হতে)

নার্সিং ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ও সময় :১৯ মে ২০২৩ [শুক্রবার সকাল ১০.০০ ঘটিকা হতে ১১.০০ ঘটিকা পর্যন্ত)

অন্যান্য লক্ষণীয় বিষয়াবলিঃ

  • প্রার্থী কোন প্রতিষ্ঠানে ভর্তির সুযোগ পাবেন তা নির্ভর করবে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের সর্বমোট প্রাপ্ত নম্বর ও প্রার্থী কর্তৃক প্রদত্ত পছন্দ ক্রমানুসারে।
  • প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত প্রার্থীগণ প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনায় স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে ভর্তিযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।
  • ভর্তি সংক্রান্ত যে কোনো বিষয়ে কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত মর্মে বিবেচিত হবে।

 

About admin

Check Also

এসএসসি ইংরেজি ১ম পত্র প্রশ্ন ও সমাধান ২০২৩ সকল বোর্ড | SSC English 1st paper Question Solution 2023

এসএসসি ইংরেজি ১ম পত্র প্রশ্ন ও সমাধান ২০২৩ সকল বোর্ড | SSC English 1st paper Question Solution 2023

এসএসসি ইংরেজি ১ম পত্র বহুনির্বাচনী সমাধান সকল বোর্ডঃ এসএসসি ইংরেজি ১ম পত্র প্রশ্ন ও সমাধান …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *